Pexels Photo 27285

ভ্রান্ত আকীদা-বিশ্বাস

উৎস:
ইসলাহী নেসাব: আগলাতুল আওয়াম
হাকীমুল উম্মত মুজাদ্দিদে মিল্লাত, মাওলানা আশরাফ আলী থানভী (র:)

মাসআলা-১: প্রসিদ্ধ আছে যে, যে ব্যক্তি নতুন মুসলমান হবে, তাকে দাস্তের ঔষধ খাওয়াতে হবে। তা না হলে সে পবিত্র হবে না। এ কথা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন।
মাসআলা-২: প্রসিদ্ধ আছে যে, গালি দেওয়ার ফলে চল্লিশ দিন পর্যন্ত ঈমান থেকে দূরে সরে যায়। ঐ সময়ের মধ্যে মারা গেলে বেঈমান হয়ে মারা যায়। এটি সম্পূর্ণ ভুল কথা। হাঁ গালি দিলে গুনাহ হয়, সে ভিন্ন কথা।
মাসআলা-৩: কতক সাধারণ মানুষের বিশ্বাস এই যে, যার কোন পীর নেই তার পীর শয়তান। এটিও ভুল কথা।
মাসআলা-৪: কতক সাধারণ মানুষ মনে করে যে, মসজিদে আকসা(বাইতুল মুকাদ্দাস) চতুর্থ আসমানে, আর দিল্লির জামে মসজিদ তার অনুরুপ। এ দু’টি ধারণাই ভুল। মসজিদে আকসা শাম দেশে(ফিলিস্তিনে) এবং দিল্লির জামে মসজিদ তার অনুরুপ নয়।
মাসআলা-৫: অনেক সাধারণ মানুষ বিশেষত: মহিলারা বসন্ত রোগ ও কন্ঠনালীর ফোড়ার চিকিৎসা করানোকে খারাপ মনে করে। অনেক সাধারণ মানুষ এ রোগকে ভূত-পেত্নীর প্রভাব মনে করে, এটা সম্পূর্ণই ভুল ধারণা।
মাসআলা-৬: কতক মহিলা মনে করে যে, নতুন বউ তার ঘর, সিন্দুক বা অন্য কোন কিছুতে তালা লাগালে তার বাড়ীতে তালা লেগে যায়, অর্থাৎ, বিরান হয়ে যায়। এ ধারণা সম্পূর্ণই ভ্রান্ত।
মাসআলা-৭: কোন কোন সাধারণ মানুষ মনে করে যে, যে ব্যক্তি ’কুল আউযু বিরাব্বিন নাস’-এর ওযীফা পড়ে,তার সর্বনাশ হয়ে যায়। এ ধারণা সম্পূর্ণরুপে ভুল। এর বরকতে বরং সে সমস্ত বিপদ থেকে মুক্তি পায়।
মাসআলা: ৮ কিছু কিছু সাধারণ মানুষ বিশেষ করে মহিলারা বলে যে, দরজার চৌকাঠের উপর বসে খাবার খেলে ঋণগ্রস্ত হয়ে যায়। এ ধারণা ভুল।
মাসআলা-৯: কতক সাধারণ মানুষের এ বিশ্বাস রয়েছে যে, প্রতি বৃহস্পতিবারের সন্ধ্যা রাতে মৃত ব্যক্তিদের আত্মা নিজ নিজ বাড়ীতে আসে এবং এক কোণায় দাঁড়িয়ে দেখতে থাকে যে, কে আমাকে সওয়াব দান করে। কিছু সওয়াব পেলে তো ভালো, অন্যথা নিরাশ হয়ে ফিরে যায়। এটা ঠিক নয়।
মাসআলা-১০: কিছু কিছু মহিলা এমন মহিলার কাছে যায় না এবং তার সাথে বসে না, যার বাচ্চা হয়ে মরে যায় এবং নিজের সন্তানদেরকেও এমন জায়গায় যেতে বাধা দেয় এবং বলে যে, মরণরোগে ধরবে। এটা অত্যন্ত খারাপ কথা। এমন করায় গুনাহ হয়।
মাসআলা-১১: কতক সাধারণ মানুষ বিশেষ করে মহিলারা মনে করে যে, প্রত্যেক মানুষের জন্য তার জীবনের তিন, আট, তেরো, আঠারো, একুশ, আটত্রিশ, তেতাল্লিশ ও আটচল্লিশতম বছর কঠিন হয়ে থাকে। এ ধারণা ভুল এবং এ বিশ্বাস ভ্রান্ত।
মাসআলা-১২: অধিকাংশ সাধারণ মানুষ মনে করে থাকে যে, কুকুর কান্না করলে কোন মহামারী বা রোগ বিস্তার লাভ করে। এটিও একান্তই ভিত্তিহীন কথা।
মাসআলা-১৩: প্রসিদ্ধ আছে যে, কোন বাড়ীতে ঝগড়া লাগিয়ে রাখতে চাইলে ঐ বাড়ীতে সজারুর কাঁটা রেখে দিবে। ঐ বাড়ীতে যতদিন সে কাঁটা থাকবে, ততদিন বাড়ীর লোকেরা ঝগড়া করতে থাকবে। এটি নিছক ভুল কথা।
মাসআলা-১৪: অজ্ঞ লোকদের মধ্যে প্রচলিত আছে যে, কেউ সফরে গেলে মহিলারা বলে যে, এখনই ঝাড়ু দিও না। কারণ, অমুক এই মাত্র সফরে বের হয়েছে। এটি ভুল কথা।
মাসআলা-১৫: প্রসিদ্ধ আছে যে, কাঠের হাতুড়ি কালো করে বাইরে নিক্ষেপ করা হলে শীালাবৃষ্টি বন্ধ হয়ে যায়। এ ধারণা ভুল।
মাসআলা-১৬: প্রসিদ্ধ আছে যে, শস্যের স্তূপের মধ্যে হাত ধুয়ে খাবার খাওয়া উচিত নয়। এবং ধারণা করা হয় যে, এতে করে ঐ স্তূপ থেকেই হাত ধুয়ে বসতে হয়। এটি একটি ভুল বিশ্বাস।
মাসআলা-১৭: প্রসিদ্ধ আছে যে, কোন মহিলা ঋতুস্রাব চলাকালে বা গর্ভাবস্থায় মারা গেলে তাকে শিকল পরিয়ে দাফন করবে। কারণ, সে ডাইনি হয়ে যায় এবং যাকে পায়, তাকে খেয়ে ফেলে। এটি শিরকী বিশ্বাস।
মাসআলা-১৮: প্রসিদ্ধ আছে যে, যেখানে মৃত ব্যক্তিকে গোসল দেওয়া হয়, সেখানে তিনদিন পর্যন্ত প্রদীপ জ্বালাবে। এটি ভিত্তিহীন কথা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *